সিমলার দর্শনীয় স্থান | Best Visiting Places In Shimlaসিমলার দর্শনীয় স্থান | Best Visiting Places In Shimla

সিমলার দর্শনীয় স্থান, কিভাবে শিমলা পৌঁছাবেন, Best Visiting Places In Shimla. Shimla tourist (visiting) places to list in Bengali

বরফে ঢাকা পাহাড়, মনোরম হ্রদ, মনোরম সবুজ, মনোরম জলবায়ু, এই সব এক জায়গায় আপনি পেতে পারেন, সেটা হল সিমলা। হিমাচল প্রদেশে অবস্থিত এই সুন্দর শহরটি দেশ-বিদেশের মানুষকে ‘হিল স্টেশনের রানী’ নামে আকৃষ্ট করে। এখানে তুষারময় পাহাড় রয়েছে এবং সুন্দর সবুজ প্রান্তরও রয়েছে। ভারতে, নববিবাহিত দম্পতিদের হানিমুন উদযাপনের জন্য এটি প্রথম পছন্দ। এখানকার জলবায়ুতে এমন নেশা আর জাদু আছে যে কেউ এখানে এলে এই জায়গাটার জন্য পাগল হয়ে যায়। বারবার এখানে আসতে চায়। সিমলায় আকর্ষণীয় এবং বিখ্যাত স্থানগুলির একটি দীর্ঘ তালিকা রয়েছে। সিমলাকে ভারতের অন্যতম প্রিয় পর্যটন স্থান বললে ভুল হবে না। আপনি বছরের যে কোন সময় সিমলা দেখতে যেতে পারেন, এটি প্রতিটি ঋতুতে সুন্দর দেখায়।

ব্রিটিশ শাসনামলেও সিমলার সৌন্দর্য বিখ্যাত ছিল। এর সৌন্দর্য তাদের আকৃষ্ট করেছিল, তাই সে সময় ব্রিটিশরা এটিকে গ্রীষ্মকালীন রাজধানী ঘোষণা করেছিলেন। সেখানে ব্রিটিশরা যেত এবং বাস করত, তার প্রমাণ আজও পাওয়া যায়, ব্রিটিশরা সেখানে বড় বড় ইমারত তৈরি করেছিল, যা আজ পর্যটনের প্রধান অংশ। সিমলা শহর 1972 সালে পুনঃনির্মিত হয় এবং একটি জেলা করা হয়। আজ আমি সিমলার পর্যটন স্থান সম্পর্কে বলব।

কিভাবে শিমলা পৌঁছাবেন (How to reach Shimla)

বিমানে (by air)

এই শহর দেশের সব বড় শহরের সাথে সংযুক্ত। সিমলা বিমানবন্দর জাবরহাট্টিতে নির্মিত। এছাড়াও, চণ্ডীগড় এবং দিল্লি এর নিকটতম বিমানবন্দর।

ট্রেনে (by train)

সিমলার কাছে কালকাতে একটি বড় স্টেশন রয়েছে, যা সমস্ত প্রধান স্টেশনকে সংযুক্ত করে। কালকা থেকে সিমলা পর্যন্ত ন্যারোগেজে ট্রেন চলে। এটিকে বলা হয় শিশুদের ট্রেন, যা সর্বত্র বিখ্যাত।

রাস্তা দ্বারা (by road)

সিমলা দিল্লি থেকে 350 কিলোমিটার দূরে এবং চণ্ডীগড় থেকে 118 কিলোমিটার দূরে। এই রুটে বেসরকারী এবং সরকারী বাস এবং ট্যাক্সি সহজেই পাওয়া যায়।

সিমলা দেখার সেরা সময় (Best time to visit shimla)

যদিও বছরের যে কোনো সময় সিমলা যাওয়া যায়, তবে প্রতিটি ঋতুর নিজস্ব মজা আছে। গ্রীষ্মে এটি আরও মনোরম, দেশের বিভিন্ন স্থানে প্রচণ্ড গরম রয়েছে, তাই ছুটি কাটানোর জন্য এটি সেরা জায়গা। তীব্র শীতের মধ্যেও এখানে তুষারপাত উপভোগ করা যায়। যেখানে বৃষ্টির সময় এই পাহাড়ি এলাকা সবুজের চাদরে ঢেকে যায়।

সিমলার দর্শনীয় স্থান (Shimla tourist places to visit list in Bengali)

পর্যটন স্পট
1. সামার হিলস
2. জাখু পাহাড়
3. স্ক্যান্ডাল পয়েন্ট, রিজ
4. ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অফ অ্যাডভান্সড স্টাডিজ
5. সিমলা স্টেট মিউজিয়াম
6. আনন্দলে
7. নলদেহরা এবং শৈলী পিক
8. চ্যাডউইক জলপ্রপাত
9. কুফরি
10. চেইল
11. দারানঘাটি অভয়ারণ্য
12. খ্রিস্ট চার্চ
13. তারা দেবী মন্দির

সামার হিলস

Summer Hill Shimla

এটি সিমলায় দেখার সেরা জায়গা। সামার হিলস একটি ছোট শহর, যা সিমলার বিখ্যাত পাহাড় থেকে 5 কিলোমিটার দূরে অবস্থিত। এটি সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে 1283 মিটার উচ্চতায় অবস্থিত। এখানে সর্বত্র সবুজের সমারোহ। এখান থেকে খুব সুন্দর একটি দৃশ্য দেখা যায়। সিমলায় 7 টি প্রধান পাহাড় রয়েছে, যেগুলি সিমলায় খুব বিখ্যাত, সামার হিল তার মধ্যে একটি। এখান থেকে সূর্যোদয় এবং সূর্যাস্ত দুটোই খুব সুন্দর দেখায়।

জাখু পাহাড়

Jakhu Hill in shimla

সিমলা থেকে 2 কিলোমিটার দূরে অবস্থিত। এটি সিমলার সর্বোচ্চ পাহাড়, যা সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে 8 হাজার কিলোমিটার উপরে অবস্থিত। এটি সিমলার প্রধান আকর্ষণ। প্রকৃতিপ্রেমীদের জন্য এটি স্বর্গের চেয়ে কম নয়। এখানে জাখু মন্দির রয়েছে, যেখানে হনুমান জির একটি বিশাল 108 ফুট উঁচু মূর্তি রয়েছে। এখানে আরোহণ করা সহজ নয়, এটি একটি দুঃসাহসিক যাত্রা। সিমলার দর্শনীয় স্থান গুলির মধ্যে জাখু পাহাড় অন্যতম।

স্ক্যান্ডাল পয়েন্ট, রিজ

Scandal Point, Ridge in shimla

এটি স্ক্যান্ডাল পয়েন্ট নামে বিখ্যাত, যা সিমলা শহরের মাঝখানে অবস্থিত। এখান থেকে সবুজ, তুষারময় পাহাড় এবং সিমলার উপত্যকা সবই দেখা যায়। এখান থেকে বরফে ঢাকা পর্বতশ্রেণীর অপূর্ব দৃশ্য দেখা যায়। সূর্যাস্ত এবং সূর্যোদয়ও এখান থেকে ভালো দেখায়। এখানে একটি বিখ্যাত গ্রন্থাগারও রয়েছে।

আরো পড়ুন: গুলমার্গের দর্শনীয় স্থান | Tourist Places To Visit In Gulmarg In Bengali

ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অফ অ্যাডভান্সড স্টাডিজ

Indian Institute of Advanced Studies in shimla
Indian Institute of Advanced Studies: Shimla tourist places to visit

এই ঐতিহাসিক ঐতিহ্য 1880-88 সালে ব্রিটিশ সরকার দ্বারা নির্মিত হয়েছিল। এটি ভারতের রাষ্ট্রপতির গ্রীষ্মকালীন বাসভবন হিসাবে নির্মিত হয়েছিল। এটি 1965 সালে ডাঃ রাধাকৃষ্ণান দ্বারা একটি ইনস্টিটিউটে রূপান্তরিত হয়েছিল। ঐতিহাসিক এই ভবনটি দেখার মতো, এখানকার দেয়ালগুলো ফায়ার প্রুফ।

সিমলা স্টেট মিউজিয়াম

Shimla State Museum in shimla

সিমলা পর্যটন স্পট গুলির মধ্যে একটি হলো হিমাচল স্টেট মিউজিয়াম লাইব্রেরি। এটি পাহাড়ের চূড়ায় অবস্থিত, এটি 1974 সালে নির্মিত হয়েছিল। ব্রিটিশ স্থাপত্য এবং বিশাল মাঠ এখানকার প্রধান আকর্ষণ। এই জাদুঘরটি গর্বের সাথে ভারতের সংস্কৃতি এবং ঐতিহ্য উপস্থাপন করে। বিভিন্ন পেইন্টিং, হস্তশিল্পের জিনিসপত্র, শিল্পকর্ম, ভাস্কর্য এখানে রয়েছে, যার মধ্যে কিছু 100 বছরেরও বেশি পুরনো।

আরো পড়ুন: নারকান্দায় দর্শনীয় স্থান | Narkanda Tourist Places In Bengali

আনন্দলে

Annandale in shimla
আনন্দলে: সিমলায় দেখার সেরা জায়গা

সিমলা পর্যটন স্থানের তালিকায় থাকতে হয়েছিল। এই রিজটি 4 কিলোমিটার দূরে। ব্রিটিশ রাজের সময় এটি বিভিন্ন খেলাধুলার প্রধান স্থান ছিল, পোলো, রেসিং, ক্রিকেট প্রধানত খেলা হত। বর্তমানে এই রেস কোর্সটিকে একটি মিনি গলফ কোর্সে রূপান্তরিত করা হয়েছে, যা গলফ প্রেমীদের প্রথম পছন্দ। সিমলায় ভিআইপি নেতারা এটি হেলিপ্যাড হিসেবেও ব্যবহৃত হয়।

নলদেহরা এবং শৈলি পিক

Naldehra and Style Peak in shimla

নলদেহরা সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে 2044 মিটার উচ্চতায় অবস্থিত। লর্ড কার্জন এখানে একটি গলফ মাঠ তৈরি করেছিলেন। ঘন সবুজ গাছ এবং আকর্ষণীয় সবুজ এখানকার পরিবেশে এক জাদু তৈরি করে। এখান থেকে বরফে ঢাকা হিমালয় পর্বত দেখা যায়। এখানকার শান্ত পরিবেশে আপনি বাতাসের শব্দও শুনতে এবং অনুভব করতে পারেন। ঘোড়ায় চড়া এখানকার প্রধান আকর্ষণ, যার মাধ্যমে আপনি পুরো পাহাড়টি পরিষ্কারভাবে দেখতে পাবেন।

চ্যাডউইক জলপ্রপাত

Chadwick Falls in shimla

এটি সিমলা থেকে 7 কিলোমিটার দূরে অবস্থিত, এখানে 1586 মিটার উচ্চতা থেকে জল পড়ে। এটি সামার হিলের কাছে অবস্থিত, আপনি যদি পায়ে হেঁটে যান তবে আপনি 45 মিনিটের মধ্যে রাস্তাটি অতিক্রম করবেন। জলপ্রপাতের চারপাশে ঘন সবুজ গাছ রয়েছে, যা এর সৌন্দর্য আরও বাড়িয়ে দিয়েছে। শুধুমাত্র এই ঝর্ণা দিয়ে সিমলায় জল সরবরাহ করা হয়। বর্ষাকালে এখানকার পানির স্তর বেড়ে যায়, যা দেখতে আরও আকর্ষণীয় করে তোলে।

কুফরি

Kufri in shimla

এটি সিমলা থেকে 19 কিলোমিটার দূরে অবস্থিত। এটি সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে 2622 মিটার উচ্চতায় অবস্থিত। এটিকে শীতকালীন ক্রীড়া রাজধানীও বলা হয়। এর আগে এটি নেপালের সীমান্তে ছিল। শীতকালে এখানে স্কিইং এবং আইস স্কেটিং এর মত শীতকালীন খেলা উপভোগ করা যায়।

চেল

chail in shimla

এখানে বিশ্বের সর্বোচ্চ উচ্চতায় অবস্থিত ক্রিকেট পিচটি একই রকম গাছ দিয়ে ঘেরা, যা পরিবেশকে অনন্য করে তুলেছে। এটি বিখ্যাত বাস্তুশাস্ত্র চাইল প্রাসাদের বাড়ি ছিল। এখান থেকে পুরো শহরের সৌন্দর্য দেখা যায়।

আরো পড়ুন: Best Hill Stations In India| ভারতের 10টি সেরা হিল স্টেশন আপনাকে আপনার জীবনে একবার যেতে হবে

দারানঘাটি অভয়ারণ্য

Daranghati Sanctuary in shimla
Daranghati Sanctuary: Best Visiting Places In Shimla

এটি সিমলা থেকে 150 কিলোমিটার দূরে অবস্থিত। এই অভয়ারণ্যটি 167.4 কিলোমিটার এলাকা জুড়ে বিস্তৃত। এটি সিমলার উপরের এলাকা। আগে বড় বড় রাজা-মহারাজারা এখানে শিকার করতে আসতেন। এই এলাকাটি 1962 সালে বনাঞ্চল হিসাবে বিজ্ঞাপিত হয়েছিল।

খ্রিস্ট চার্চ

Christ Church in shimla

সিমলায় দেখার সেরা জায়গা (Best Visiting Places In Shimla) খ্রিস্ট চার্চ উত্তর ভারতের প্রাচীনতম গির্জাগুলির মধ্যে একটি। এটি 1857 সালে ব্রিটিশ সরকার দ্বারা নির্মিত হয়েছিল। এটি নিও-গথিক শৈলীতে ডিজাইন করা হয়েছিল। ক্রাইস্ট চার্চ ভারতে ব্রিটিশ সরকারের দীর্ঘ শাসনের প্রতীক।

তারা দেবীর মন্দির

Tara Devi Temple
Tara Devi Temple

এই মন্দিরটি সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে 1851 মিটার উচ্চতায় অবস্থিত। এটি সিমলা থেকে 11 কিলোমিটার দূরে। সিমলার দর্শনীয় স্থান গুলির মধ্যে এটি বিখ্যাত।

এগুলি সিমলার কয়েকটি প্রধান স্থান যা অবশ্যই পরিদর্শন করা উচিত। তবে সিমলা এখানেই সীমাবদ্ধ নয়, এটি ছাড়াও আরও অনেক কেন্দ্র এবং আকর্ষণের জায়গা রয়েছে। আমি আপনাকে প্রধান স্থান বলেছি, আপনি যদি সেখানে যান এবং অন্য যে কোনও জায়গার মতো, তবে আমাদের এটি সম্পর্কে বলুন, আমরা এটিকে আমাদের তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করব। তাহলে আপনি কিসের জন্য অপেক্ষা করছেন, এই গ্রীষ্মের ছুটিতে আজই আপনার পরিবারের সাথে এই শীতল জায়গায় যাওয়ার পরিকল্পনা করুন।


iNFO বাংলা দেখার জন্য ধন্যবাদ

By Tanmoy

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *