Health Benefits Of Lemon Juice in BengaliHealth Benefits Of Lemon Juice in Bengali

Health Benefits Of Lemon Juice in Bengali: লেবুর রস ও লেবুর উপকারিতা, অপকারিতা, চুলের উপকারিতা, ত্বকের জন্য উপকারিতা, কখন পান করবেন, কীভাবে তৈরি করবেন। Lemon benefits in Bengali, Lemon and lemon juice with warm water benefits in Bengali]

গ্রীষ্মের মরসুম শুরু হয়েছে যা নিয়ে সবাই বেশি উত্তেজিত। প্রোটিন, কার্বোহাইড্রেট, ভিটামিন এবং মিনারেল সমৃদ্ধ হওয়ায় মানুষ লেবুর জল পান করতে পছন্দ করে। এছাড়া এটি ভিটামিন সি এর সবচেয়ে ভালো উৎস। এটি বিভিন্ন সমস্যার জন্য খুবই উপকারী। এটি স্বাস্থ্য, চুল এবং ত্বকের উন্নতি করে এবং এই সমস্ত জিনিসের জন্য খুব ভাল। আজকাল মানুষ গ্রীষ্মকালে এটি সবচেয়ে বেশি খায়। সকালে ঈষদুষ্ণ জল দিয়ে পান করুন, এটি আপনার পরিপাকতন্ত্রকেও সুস্থ রাখে। আসুন আমরা এই নিবন্ধে এর বিভিন্ন সুবিধা এবং অসুবিধা সম্পর্কে আপনাকে বলি –

Table of Contents

লেবুর রস ও লেবুর উপকারিতা

লেবুর রস ভিটামিন সি এর উৎস, যা শরীরের জন্য খুবই উপকারী। ভিটামিন সি সমৃদ্ধ উপাদান শরীরের ত্বককে কোমল করে, যার মধ্যে লেবুর রস অত্যন্ত উপকারী। চিকিৎসকরা প্রতিদিন সকালে খালি পেটে হালকা গরম জলেতে কয়েক ফোঁটা লেবুর রস মিশিয়ে খেতে বলেন। লেবুর রসের ত্বক, চুল এবং স্বাস্থ্যের জন্য নিম্নলিখিত উপকারিতা রয়েছে-

লেবুর রসের স্বাস্থ্য উপকারিতা (Health Benefits Of Lemon Juice In Bengali)

কিডনির পাথর সারায় (Cures kidney stones)

প্রতিদিন আধা কাপ লেবুর রস পান করলে প্রস্রাবে অ্যাসিডের পরিমাণ বেড়ে যায় এবং বিষাক্ত পদার্থ বের হয়ে যায়। এতে ক্যালসিয়ামের কারণে কিডনিতে পাথর হওয়ার ঝুঁকি কমে।

রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করে (Regulates blood pressure)

লেবুর রস খেলে উচ্চ রক্তচাপের সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। এর ফলে রক্ত ​​চলাচল ঠিকমতো হয় এবং শরীর সুস্থ থাকে।

গলা ব্যথা উপশম করে (Soothes sore throat)

লেবুর রসে মধু মিশিয়ে পান করলে গলা ব্যথা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। গলার ইনফেকশনও চলে যায়।

চুলকানি দূর করে (Relieves itching)

পোকামাকড়ের কামড় বা সংক্রমণের কারণে চুলকানিতে লেবুর রস লাগান। কিছু সময়ের মধ্যে সমস্যা দূর হবে।

ক্যান্সার প্রতিরোধক (Cancer prevention)

লেবুতে রয়েছে ক্যান্সার প্রতিরোধক গুণ। ক্যান্সার কোষ থেকে শরীরের কোষ রক্ষা করে।

এতে পটাসিয়াম বেশি থাকে (It is high in potassium)

কলা শুধু পটাশিয়ামের ভালো উৎসই নয়, লেবুতেও প্রচুর পরিমাণে পাওয়া যায়। লেবুতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি, এটি খেলে আমাদের শরীর 80 মিলিগ্রাম মিনারেল পায়।

জ্বর কমায় (Reduces fever)

যদিও বলা হয় জ্বরের সময় লেবু খাওয়া উচিত নয়, তবে আপনাদের জানিয়ে রাখি যে জ্বর থেকে তাৎক্ষণিক উপশমের জন্য লেবুর রস পান করুন। কারণ তা সঙ্গে সঙ্গে শরীরের তাপমাত্রা কমিয়ে দেয়।

দাঁতের ব্যথা দূর করে (Relieves toothache)

দাঁতের ব্যথায় লেবুর রস লাগালে ব্যথা সঙ্গে সঙ্গে কমে যায়। এছাড়াও লেবুর রস মাড়িতে লাগালে রক্তপাতের সমস্যা চলে যায়।

ওজন নিয়ন্ত্রণ করে (Controls weight)

লেবুর রস ওজন নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে। সকালে প্রথমে হালকা গরম জলের সাথে 6 থেকে 8 ফোঁটা লেবুর রস খেলে ওজন কমায়। খালি পেটে লেবুর রস খেলে শরীর থেকে টক্সিন বের হয়ে যায়, ফলে শরীর সুস্থ থাকে।

পরিপাকতন্ত্রকে শক্তিশালী করে (Strengthens the digestive system)

লেবুর রস কোষ্ঠকাঠিন্যের মতো সমস্যাও কমায় কারণ এটি পরিপাকতন্ত্রকে মসৃণ করে। আপনার পরিপাকতন্ত্র সুস্থ থাকলে পেট সংক্রান্ত কোনো রোগে আক্রান্ত হতে পারবেন না।

অ্যাসিডিটি কমায় (Reduces acidity)

লেবুর রস (লেমন বা লেবুর রস গরম জলের সাথে) সকালে খালি পেটে খেলেও অ্যাসিডিটির সমস্যা কমে যায়। কারণ জল আমাদের শরীরের জন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ।

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায় (Increases immunity)

লেবুর রস শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। যার ফলে শরীর সুস্থ থাকে।

শরীরে তত্পরতা আছে (Lemon juice refreshes the brain and cells)

লেবুর রস মস্তিষ্ক ও কোষকে সতেজ রাখে। যার কারণে ক্লান্ত লাগে না। শরীরে চঞ্চলতা বজায় থাকে।

ক্যালসিয়াম ও অক্সিজেনের মাত্রা

লেবুর রসে পাওয়া পুষ্টি আপনার লিভারকে সুস্থ করে তোলে, কারণ এটি লিভারে ক্যালসিয়াম এবং অক্সিজেনের মাত্রা বাড়ায়।

নিঃশ্বাসের দুর্গন্ধ থেকে মুক্তি পান

নিঃশ্বাসে দুর্গন্ধের মতো সমস্যা থাকলে লেবুর রস তার সবচেয়ে ভালো সমাধান। হ্যাঁ, আপনি যদি প্রতিদিন লেবুর শরবত পান করেন তাহলে আপনার এই সমস্যা হবে না বা আপনার যদি আগে থেকেই এই সমস্যা থাকে তাহলে ধীরে ধীরে কমে যাবে।

গ্রীষ্মে জাম খাওয়ার ৯টি উপকারিতা 

ত্বকের জন্য লেবুর রসের উপকারিতা (Benefits of Lemon Juice for Skin)

বলিরেখা ও মরা ত্বকের জন্য উপকারী

লেবু মুখ উজ্জ্বল করতেও খুব ভালো। যাদের মুখে অকালে বলিরেখা আছে বা যাদের অনেক সময় রোদে কাটাতে হয় তাদের মুখে লেবু লাগাতে হবে, এতে মুখের মরা চামড়া উঠে যায় এবং মুখ পরিষ্কার হয়। লেবুর রস মুখে লাগালে ময়লা সহজেই পরিষ্কার হয়ে যায়।

তৈলাক্ত ত্বকের জন্য উপকারী

যাদের ত্বক তৈলাক্ত। তাদের অবশ্যই লেবুর রস লাগাতে হবে। এর কারণে মুখ তৈলাক্ত থাকে না, যার কারণে মাটি ও ধুলোর কণা লেগে থাকে না।

চোখের নিচের কালো দাগ দূর করতে উপকারী

আপনার চোখের নিচে কালো দাগ থাকলে এতে রস লাগালে আপনি সহজেই কালো দাগ দূর করতে পারবেন।

ব্রণ কমাতে উপকারী

লেবুর রস ব্রণের সমস্যা কমাতেও সাহায্য করে। তাই গ্রীষ্ম বা শীতে যেকোনো সময় লেবু লাগান।

চুলের জন্য লেবুর রসের উপকারিতা (Benefits of lemon juice for hair)

নরম এবং চকচকে

চুলে লেবুর রস লাগালে চুল নরম হওয়া এবং উজ্জ্বলতা বজায় রাখার মতো অনেক উপকারিতা রয়েছে। এ জন্য ঘরেই লেবুর রস দিয়ে কন্ডিশনার তৈরি করে ব্যবহার করুন।

কিভাবে কন্ডিশনার বানাবেন

প্রথমে লেবুর রসে দুই চামচ মধু এবং তারপর অলিভ অয়েল মিশিয়ে নিন। এই তিনটি জিনিস মিশিয়ে চুলে লাগান। এটি আপনার চুলে প্রায় 30 মিনিটের জন্য রাখুন। এরপর মাইল্ড শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন। এতে আপনার চুল আগের থেকে আরো সুন্দর দেখাতে শুরু করবে।

চুল পড়া কমায়-

এ ছাড়া লেবুর রস চুলে ব্যবহার করলে চুল পড়া বন্ধ হয়। যারা চুল পড়ে বলে অভিযোগ করেন তারা লেবুর রসের সাথে নারকেল তেল মিশিয়ে 20 মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন, এই অভিযোগ দূর হবে এবং চুল পড়া কমে যাবে।

লেবুতে উপস্থিত পুষ্টিগুণ (Nutrients Present in Lemon)

পরিপোষক পদার্থপরিমাণ
ক্যালোরি29
মোট স্যাচুরেটেড ফ্যাট0.3 g (0 %)
কোলেস্টেরল0 mg (0 %)
সোডিয়াম2 mg (0 %)
পটাসিয়াম138 mg (3 %)
কার্বোহাইড্রেট9 g (3 %)
ফাইবার2.8 g (11 %)
চিনি2.5 g
প্রোটিন1.1 g (2 %)
ভিটামিন বি – 65 %
ভিটামিন সি88 %
ভিটামিন ডি0 %
ক্যালসিয়াম2 %
ম্যাগনেসিয়াম2 %
আয়রন3 %
Cobalamin0 %

লেবুতে কিছু পরিমাণ আয়রন এবং ভিটামিন A পাওয়া যায়, তাই লেবু বহু-প্রতিভাসম্পন্ন, যা শরীরকে রোগের বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্য প্রস্তুত করে।

লেবু জল পানের অপকারিতা (Disadvantages Of Drinking Lemon Water)

অতিরিক্ত মাত্রায় লেবু পানি খেলে অনেক সমস্যা হতে পারে।

দাঁতের সমস্যা

অত্যধিক অ্যাসিডযুক্ত পদার্থ খাওয়ার ফলে আমাদের শরীরে সমস্যা হয় এবং এর প্রথম প্রভাব দাঁতে দেখা যায়। অত্যধিক লেবু খাওয়া আপনার দাঁতে সংবেদনশীলতার সমস্যা সৃষ্টি করবে, যার মানে আপনি যখন খুব ঠান্ডা বা খুব গরম খাবার খাবেন তখন আপনার দাঁতে একটি শক্তিশালী শিহরণ সংবেদন হবে। অনেক সময় বেশি লেবু খেলেও দাঁতে ঘা হয়।

বুক ব্যাথা

অতিরিক্ত লেবু জল খেলে পেট ও বুকে জ্বালাপোড়া হয়। পেটে অ্যাসিডিটি বেড়ে যায়, যার ফলে পেটে ব্যথা হয় এবং খাবার হজম হয় না।

পানিশূন্যতা

লেবুতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন C। এটি কিডনিতে প্রস্রাবের উৎপাদন বাড়ায়, যা শরীর থেকে বিষাক্ত উপাদান এবং সোডিয়াম দূর করতে সাহায্য করে। কিন্তু বেশি পরিমাণে লেবুর জল খেলে শরীরে জলের মাত্রা কমে যায়। এই কারণে, অনেক সময় আপনি ডিহাইড্রেশনের সমস্যায় পড়তে শুরু করবেন, এমন পরিস্থিতিতে আপনার খাদ্যতালিকায় লেবু জল কম করা উচিত।

লেবুর জল অনেকের শরীরে ভালো প্রভাব ফেলে না, এতে কাশির সমস্যা হয়, যা ধীরে ধীরে বড় হতে থাকে। আপনার ডায়েটে প্রচুর পরিমাণে লেবু জল অন্তর্ভুক্ত করার আগে অবশ্যই একজন ডাক্তারের সাথে পরামর্শ করুন।

Ginger Shots In The Morning: এটি কীভাবে বিপাক বাড়ায়

কখন লেবু জল পান করা উচিত? (When should you drink lemon water)

আপনি দিনে দুবার লেবু জল পান করতে পারেন, সকালে খালি পেটে একবার এবং বিকেলে একবার।

  1. সকালে – সকালে এই কুসুম গরম জল পান করুন এবং তাও খালি পেটে, এতে আপনার শরীরের চর্বি কমবে এবং ওজন কমানো আপনার পক্ষে সহজ হবে। অতএব, বেশিরভাগ লোকেরা এটি সকালে খালি পেটে হালকা গরম জলে খান। এটি আপনার পরিপাকতন্ত্রকেও সুস্থ রাখে।
  2. দুপুর – বিকেলে যাতে আপনার শরীরে এনার্জি থাকে কারণ এটিও এক ধরনের এনার্জি ড্রিংক। যা পান করলে সারাদিন শরীর সতেজ থাকে। আপনি এটি সাধারণ জল দিয়ে পান করতে পারেন, বেশিরভাগ লোকেরা গ্রীষ্মে এটি বেশি খান। এটি আপনার তৃষ্ণাও মেটায়। আপনি খাওয়ার সময়ও এটি পান করতে পারেন, এটি খাবারকে সহজে হজম করে।

কিভাবে লেমোনেড বানাবেন (How to Make Lemon Water)

আপনি যদি লেমনেড বানানোর কথা ভাবছেন তাহলে খুব সহজ উপায়ে তৈরি করা যায়।

  • প্রথম পদ্ধতি – একটি পদ্ধতি হল এটি হালকা গরম জলেতে তৈরি করা… এর জন্য আপনাকে এক কাপ গরম জল নিতে হবে যাতে আপনি এক বা অর্ধেক লেবু ছেঁকে তার মধ্যে মধু মিশিয়ে পান করুন। এতে আপনার হজমশক্তি ভালো থাকবে।
  • দ্বিতীয় পদ্ধতি- দ্বিতীয় পদ্ধতি হল এটিকে সাধারণ জলেতে বানাতে হবে, এর জন্য আপনাকে একটি ছোট কাপ জল নিতে হবে, এতে 2 চামচ চিনি মিশিয়ে জল গুলিয়ে নিতে হবে। এর পর এর মধ্যে 1 চামচ কালো লবণ দিন এবং সবকিছু মেশান, তারপরে এতে আরও কিছু জল দিন, তারপর ইচ্ছা হলে বরফ দিন, না হলে এভাবে পান করুন। আপনি এটি প্রস্তুত করতে পারেন এবং আপনার অতিথিদেরও দিতে পারেন। গরমে চায়ের পরিবর্তে লেবু জল খুবই উপকারী।
  • তৃতীয় পদ্ধতি – তৃতীয় পদ্ধতি, এর জন্য আপনি কয়েকটি লেবুর টুকরো নিন এবং একটি গ্লাসে রাখুন, তারপর তাদের সাথে পুদিনা পাতা দিন। সামান্য চিনির গুঁড়া ও সামান্য কালো লবণ দিয়ে ছেঁকে নিয়ে রস জমা হলে বরফের সঙ্গে সোডা বা কোল্ড ড্রিংক দিন। এটি দিয়ে, একটি ভিন্ন স্বাদের লেমনেড তৈরি হবে। যা আপনি আপনার অতিথিদের কাছে পানীয় হিসাবে উপস্থাপন করতে পারেন।

লেবুর রস শরীরের জন্য খুবই উপকারী, যে কোনো আকারে প্রতিদিন এটি গ্রহণ করুন, এটি শরীরকে শক্তিশালী ও আকর্ষণীয় করে তুলতে সাহায্য করবে।

প্রশ্ন: লেবু কেন ত্বকের জন্য ভালো?

উত্তর: ত্বকের উন্নতির জন্য প্রতিদিন লেবু লাগাতে হবে, এটি ত্বককে উজ্জ্বল করে।

প্রশ্নঃ লেবু পানির উপকারিতা কি কি?

উত্তর: এটি আপনার শরীরে জমে থাকা চর্বি কমায় এবং এছাড়াও, আপনি অনেক রোগ থেকে মুক্তি পান।

প্রশ্নঃ কখন এবং কিভাবে লেবু পানি পান করা উচিত?

উত্তর: গ্রীষ্মের মৌসুমে খাবারের সঙ্গে লেবু পানি পান করা উচিত, এটি খাবার ভালোভাবে হজম করতে সাহায্য করে। আর তোমার তৃষ্ণাও মিটেছে।


iNFO বাংলা দেখার জন্য ধন্যবাদ

By Tanmoy

আমি তন্ময় ঘোরই, কলকাতা, পশ্চিমবঙ্গের একজন ব্লগার এবং ইউটিউবার। আমি পাঁচ বছরেরও বেশি সময় ধরে ব্লগিং করছি, এবং আমি বিভিন্ন বিষয়ে সহায়ক তথ্য শেয়ার করতে পছন্দ করি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *